নরসিংদীতে কৃষকদের পাকা ধান কেটে দিলেন পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা

নরসিংদী প্রতিনিধি, কে.এইচ.নজরুল ইসলাম, ২৮ মে, ২০১৯ (বিডি ক্রাইম নিউজ ২৪) : নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামানের নেতৃত্বে পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা দরিদ্র কৃষকদের পাকা ধান কেটেও মারাই করে দিয়ে ব্যতিক্রমধর্মী এক উদ্যোগ নিয়ে দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করলেন। ২৮ মে মঙ্গলবার দুপুরে সদর উপজেলার চরাঞ্চ্যলের দরিদ্র কৃষকদের পাকা ধান কেটে দেন মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান ও পুলিশ সদস্যরা।

অপরদিকে শুধু তাই নয় বিভিন্ন সময়ে রেল ষ্টেশন, স্কুল, মাদ্রাসা ও পৌর শহরের মার্কেটগুলোতে প্রতিদিন মাইক ব্যবহার করে মাদকের প্রতি সচেতন হওয়ার অনুরোধ জানান সদর মডেল থানার (ওসি) সৈয়দুজ্জামান। পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করারও অনুরোধ জানান তিনি।

নরসিংদী জেলার পুলিশ সূত্রে জানা যায় যে, জেলায় তাদের পুলিশ সদস্য রয়েছে প্রায় ১৪শত। এর মধ্যে ৭টি থানা রয়েছে।দরিদ্র কৃষক কফিল উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, কোনো থানার (ওসি) কোনো সময়ে এ জেলায় মাঠ পর্যায়ে দরিদ্র কৃষকদের ফসলী ক্ষেতের পাকা ধান কেটে দেওয়ার উদ্যোগ নেয়নি। দরিদ্র কৃষকরা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামানের এ উদ্যোগের জন্য ধন্যবাদ জানায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান জানান, সরকারী ধারাবাহিকতা উন্নয়নের স্বার্থে আমরা পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা একটি অংশ। তাই দরিদ্র কৃষক যখন তার প্রকৃত ফসলী জমিতে আগুন লাগিয়ে ফেসবুকের মাধ্যমে ভাইরাল করে তখনি দেখি, তখন আর বসে থাকা য়ায় না।

তাই পুলিশ সুপারের নেত্বেতে এ জেলাকে আইনের প্রতি আস্থা আনার জন্য সর্বধা জনসাধারনে জন্য কাজ করছি। কিন্তু আজ মঙ্গলবার দরিদ্র কৃষকদের ধানী ক্ষেত কেটে দেওয়ার আমরা পুলিশ বাহিনী একটি ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ নিয়েছি।এদিকে আইন বিষজ্ঞরা মনে করেন যে, প্রতিটি থানার কর্মকর্তারা এভাবে প্রকৃত গ্রামে দরিদ্র কৃষকদের প্রতি সহনশীল আচরণ করে তাহলে পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের প্রতি জন সাধারণের আস্থা ফিরিয়ে আসবে।

পুলিশ ও জন সাধারণ একটি বন্ধু হিসাবে পরিণত হবে। এই দরিদ্র কৃষকদের পাকা ধান ক্ষেত কেটে নরসিংদী সদর মডেল থানা পুলিশ সদস্যরা ব্যতিক্রমধর্মী উদ্ধোগের ফলে কৃষকদের কাছে দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করেছে। এমন  উদ্যোগের ফলে পুলিশের ভাবমুরর্তী দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করেছে জেলাজুড়ে। এতে করে জেলায় ব্যাপক প্রশংসায় সর্বস্তরের মানুষ প্রশংসা করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *